ড.সফিকুল ইসলামের “যে কথা যায় না বলা” গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন।

বিশেষ প্রতিবেদকঃবাংলা একাডেমির গ্রন্থ উন্মোচন মঞ্চে ড.সফিকুল ইসলামের ‘যে কথা যায় না বলা’ বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন লেখক ও টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব, সাহিত্যে বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন।উপস্থিত ছিলেন- আগামী প্রকাশনীর প্রকাশক বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গণি, কথাসাহিত্যিক মাহবুব মোর্শেদ, যুগান্তরের সাহিত্য সম্পাদক কবি জুননু রাইন, কবি মতিন রায়হান, গবেষক ও

লেখক-সাহিত্যিকদের আনন্দ সম্মিলন

বাংলাদেশে এখন খ্রিষ্টীয় বছর শুরু হয় সারা দেশে বই নিয়ে উৎসবের ভেতর দিয়ে। এই বই স্কুলের পাঠ্যবই। তবে বছরের শুরুতেই বই নিয়ে আরও একটি আনন্দঘন উৎসব হলো গতকাল বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে। এটি বর্ষসেরা মননশীল ও সৃজনশীল বইয়ের পুরস্কার বিতরণীর আয়োজন। এত দিনে সবার জানা প্রথম আলো বঙ্গাব্দ

লিখি পদ্য, মুহূর্তের আলো

নতুন বছরে নতুনের আবাহনে সবাই নিজের মুখোমুখি হন, করেন নতুন পরিকল্পনা। লেখকেরাও এর বাইরে নন। এই আয়োজনে মহাদেব সাহা লিখেছেন ২০১৮ সালে লেখালেখি নিয়ে তাঁর পরিকল্পনা আমি ঠিক অতটা পরিকল্পিত জীবনের মানুষ নই, লেখালেখির বেলায়ও তাই। সাধারণত লিখি পদ্য, তাকে বলা যায়, মুহূর্তের আলো, পরিকল্পনা করে হয় না। ছক তৈরি করে,

রাত পোহালে পাখি বলে

নতুন বছরে নতুনের আবাহনে সবাই নিজের মুখোমুখি হন, করেন নতুন পরিকল্পনা। লেখকেরাও এর বাইরে নন। এই আয়োজনে আনিসুল হক লিখেছেন ২০১৮ সালে লেখালেখি নিয়ে তাঁর পরিকল্পনা পরিকল্পনা করে তো কিছু করিনি। পরিকল্পনা করে জন্মগ্রহণ করিনি, একদিন দেখি, একটা জীবন পেয়েছি, দোয়েল-শালিকের নয়, শুঁয়োপোকা-প্রজাপতির নয়, মানুষের জীবন। পরিকল্পনা করে ছেলে হইনি, পরিকল্পনা

আগামী দিনের অনুবাদ

নতুন বছরে নতুনের আবাহনে সবাই নিজের মুখোমুখি হন, করেন নতুন পরিকল্পনা। লেখকেরাও এর বাইরে নন। এই আয়োজনে খালিকুজ্জামান ইলিয়াস লিখেছেন ২০১৮ সালে লেখালেখি নিয়ে তাঁর পরিকল্পনা সময় যত চেপে আসছে, শক্ত চোয়াল হাঁ করে যতই নিকটতর হচ্ছে, ততই যেন সময়েরই শাখা-প্রশাখা দিনক্ষণে আরও বেশি করে ঝুলে থাকতে ইচ্ছে করছে। আমার তো

এ বছরের লেখালেখি

নতুন বছরে নতুনের আবাহনে সবাই নিজের মুখোমুখি হন, করেন নতুন পরিকল্পনা। লেখকেরাও এর বাইরে নন। এই আয়োজনে শাহাদুজ্জামান লিখেছেন ২০১৮ সালে লেখালেখি নিয়ে তাঁর পরিকল্পনা কারও কাছে প্রতিজ্ঞা করিনি, কোথাও দস্তখত দিইনি যে আমাকে এ বছর লিখতে হবে। তবু টের পাই, না লিখে আমার উপায় নেই। খুব ভেতরের একটা ঘুমিয়ে থাকা

টার্গেট আত্মজীবনী

নতুন বছরে নতুনের আবাহনে সবাই নিজের মুখোমুখি হন, করেন নতুন পরিকল্পনা। লেখকেরাও এর বাইরে নন। এই আয়োজনে আকবর আলি খান লিখেছেন ২০১৮ সালে লেখালেখি নিয়ে তাঁর পরিকল্পনা আমি মূলত পাঠক, বিভিন্ন বিষয়ে পড়তে ভালোবাসি। বই লেখার কষ্ট করতে চাইনি। তবু অনেক দিন পড়াশোনার পর একসময় আমার মনে হলো, কোনো কোনো বিষয়